কম্পিউটার মাদারবোর্ড পরিচিতি, Computer Motherboard Details

মাদারবোর্ড, Computer Motherboard

মাদারবোর্ড পরিচিতি

Computer Motherboard Details

মাদারবোর্ড: IDE কন্ট্রোলার-

IDE অর্থ হচ্ছে Integrated Drive Electronics। আইডিই কন্টোলার 40

পিন বিশিষ্ট হয়ে থাকে। মাদারবোর্ডের সাথে হার্ডডিস্ক, সিডিরম ড্রাইভ, ডিভিডি ড্রাইভ

মাদারবোর্ড IDE কন্ট্রোলার
মাদারবোর্ড IDE কন্ট্রোলার

ইত্যাদি ডিভাইস সমূহ সংযোগ দেওয়ার জন্য আইডিই কনট্রোলার ব্যবহার করা হয়। সব মাদারবোর্ডে দুইটি আইডিই কন্টোলার থাকে একটি প্রাইমারি আইডি অন্যটি সেকেন্ডারি আইডি কন্টোলার।

মাদারবোর্ডের বিভিন্ন প্রকার পোর্ট-

সিরিয়াল পোর্টঃ মাদারবোর্ডে দুইটি সিরিয়াল পোর্ট দেখা যায়। সাধারণত সিরিয়াল পোর্ট ৯ এবং ১০ পিনের হয়ে থাকে। এটা মেইল এবং ফিমেইল উভয় প্রকার হতে পারে। ‍সিরিয়াল পোর্ট এর মাধ্যমে মাউস এবং মডেমের সংযোগ দেওয়া হয়।

প্যারালাল পোর্ট-

প্যারালাল পোর্টকে লাইন প্রিন্টার পোর্ট বলা হয়। সাধারণত প্রিন্টার সংযোগ দেয়া হয় বলে ধারণের পোর্টকে প্যারালাল পোর্ট বালা হয়। এ পোর্ট 26পিনের হয়ে থাকে। এর মাধ্যমে প্রিন্টার, স্ক্যানার ইত্যাদি সংযোগ প্রদান করার কাজে ব্যবহৃত হয়। তবে বর্তমানের প্রিন্টার সব USB বলে এখনকার মাদারবের্ড প্যারালাল পোর্ট ব্যবহার করা হয়না।

মাদারবোর্ডের PS2 পোর্ট- 

মাদারবোর্ডের PS2 পোর্টঃ
মাদারবোর্ডের PS2 পোর্ট

PS2 পোর্ট সাধারণত মাউস এবং PS2 কিবোর্ডের সংযোগের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটার কানেক্টর দেখতে গোল আকৃতির যা মাদারবোর্ডের সবার উপরে থাকে। ইউএসবি মাউস কিবোর্ডের তুলনায় PS2 পোর্টের মাউসে এবং কিবোর্ডে অনেক বেশি ফ্যাসালিটি ফংশন কাজ করে। বর্তমানে PS2 মাউস এবং কিবোর্ডের ব্যবহার নেই বলেলেই চলে।

মাদারবোর্ড বিভিন্ন অংশের নাম-

কীবোর্ড কানেক্টর-

কীবোর্ড কানেক্টর সাধারণত মাদাবোর্ডের সাথে কীবোর্ড সংযোগ দেওয়ার কাজে ব্যবহৃত হয়। মাদারবোর্ডের উপরে বাম দিকের কোনার কানেক্টরটি কীবোর্ড (KEYBOARD)কানেক্টর। এটির রং সাধারণত বেগুনি হয়ে থাকে।

মাউস কানেক্টর-

মাদারবোর্ডের সাথে মাউসের সংযোগ দেওয়ার জন্য মাউস কানেক্টর ব্যবহার করা হয়। কীবোর্ড কানেক্টররের পারে আরেকটি সবুজ রঙের কানেক্টর থাকে যা মাউস কানেক্টর হিসাবে ব্যবহার করা হয় একে PS2 পোর্ট বলা হয়।

ইউএসবি কানেক্টর-

USB- Universal Serial Bus পোর্টে কমিউনিকেশনকে আরো অধিকতর দ্রুততম করে। পিসির সাথে কোন ডিভাইস যেমন-স্ক্যানার, প্রিন্টার, মাউস, কীবোর্ড, প্রেনড্রাইভ ইত্যাদির সংযোগ প্রদান করতে গেলে ইনস্ট্রল করতে হতো। কিন্তু USB পোর্টের সাথে এসকল ডিভাইস সংযোগ দিলে ইনস্ট্রল করার মত ঝামেলা পোহাতে হয়না। তাছাড়া একই পোর্টে মাল্টিপল হার্ডডিস্ক যুক্ত করার সুযোগ দেয়।

কম্পিউটার তৈরী করতে যা যা লাগে-

একটি সাধারণ কম্পিউটার তৈরী করতে যে কম্পোনেন্ট গুলো লাগে নিম্নে তা উল্লেখ করা হলো। যথা-

  1. পিসি কেসিং
  2. পাওয়ার সাপ্লাই
  3. মাদারবোর্ড
  4. র‌্যাম/RAM
  5. প্রসেসর
  6. হার্ডডিস্ক
  7. সিডিরোম/ডিভিডি রোম/রাইটার
  8. কীবোর্ড
  9. মাউস
  10. মনিটর
  11. সাউন্ড বক্স
  12. সিস্টেমের সাথে প্রয়োজনীয় ক্যাবল ইত্যাদি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *