দিনাজপুরের মেডিকেল কলেজে করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় পিসিআর মেশিন বসানো হচ্ছে

করোনা ভাইরাস পরীক্ষা

দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস পরীক্ষা এর জন্য পলিমার চেইন রি-এ্যাকশন (PCR) মেশিন বসানো হয়েছে। আভ্যন্তরিন করোনাভাইরাস শনাক্ত করার জন্য মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের তত্তাবধানে তা স্থাপন করা হয়। এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ শিবেস সরকারের হাতে গতকাল পিসিআর মেশিন হস্তান্তর করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। এ সময় হুইপ ইকবালুর রহিম সাংবাদিকদের বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধ এবং করোনা ভাইরাস শনাক্তের জন্য দিনাজপুর সম্পুর্ন ভাবে প্রস্তুত রয়েছে।

জানা যায়, স্বর্দি-জ্বরে আক্রান্ত রোগীদের জন্য সেখানে পৃথক ভাবে   করা হয়েছে। এছাড়া নতুন করে ২টি করোনা  আইসোলেশন ওয়ার্ড নির্মাণ করা হয়েছে।

সেখানে লাইফ সাপোর্টসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী সংযোজন করা হয়েছে। এছাড়াও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে আরেকটি করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ড করা হয়েছে। শহরের বাইরে ৩টি প্রতিষ্ঠানে কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় পিপিই, মাস্ক, কিটস সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রস্তুত রয়েছে প্রয়োজনীয় চিকিৎসক, ইন্টার্নি চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যসেবা কর্মী। এ ছাড়া করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য আলাদা এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এসব জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি নিজেই তদারকি করছেন।

হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি দিনাজপুরে দ্রুত পিসিআর মেশিন প্রেরণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আমি আমার জীবনকে জনগনের জন্য উৎস্বর্গীত করেছি। তিনি আত্মবিশ্বাস রেখে আরও বলেন, ইনশাল্লাহ আমরা অচিরেই করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত হবো।

তিনি এই দুর্যোগে মানুষের পাশে দাড়াবার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। তিনি আরোও জানান যে, চিকিৎসার জন্য কাউকে আর বাইরে যেতে হবে না। এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এখন প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হবে।

মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ শিবেস সরকার বলেন-

৮/১০ দিনের মধ্যেই দিনাজপুরে করোনা ভাইরাস শনাক্তের কার্যক্রম শুরু হবে।দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ নির্মল চন্দ্র দাস বলেন, করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসা ও শনাক্ত করনের জন্য স্বার্বক্ষনিক ৩১ জন চিকিৎসক ও ৩০ জন নার্স প্রস্তুত রয়েছে।

উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের হুইপ ইকবালুর রহিম জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নির্দেশনায় দ্রুত মেশিনটি স্থাপনের কার্যক্রম গ্রহন করা হয়েছে। দিনাজপুর পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ও নীলফামারী জেলার করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা সম্ভব হবে। জীবানু শনাক্তের মাধ্যমে করোণা প্রতিরোধ সম্ভব। উল্লেখ্য কেবল দিনাজপুর জেলাতেই প্রায় ২৫ লক্ষ মানুষের বসবাস।

এদিকে করোণা পরীক্ষা ও চিকিৎসা প্রদানকারী ডাক্তার, নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তায় পিপিই সরবরাহসহ সকল সহযোগিতা ও প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। চিকিৎসার জন্য কাউকে আর ঢাকা-রংপুর যেতে হবে না। এম আব্দুর রহিম রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এখন চিকিৎসা দেয়া হবে। এক্ষেত্রে সকলকে বাড়ীতে অবস্থানের আহবান জানিয়ে বলা হয় সন্দেহ হলেই খবর দিন নমুনা সংগ্রহ করে আনবো আমরা।

পিসিআর মেশিন হস্তান্তরের সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কুদ্দুস, হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ নজমুল, কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ নাদির হোসেন, ডাঃ নুরুজ্জামান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *